প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ : বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ তৃতীয় অধ্যায় 2023।। Class 10th 3rd chapter suggestion

 


প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ : বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ তৃতীয় অধ্যায় ।। Class 10th 3rd chapter suggestion


প্রিয় দশম শ্রেনি শিক্ষার্থী তোমাদের জন্য নিয়ে এসেছি ইতিহাস তৃতীয় অধ্যায় প্রশ্নপত্র । আজ আমি তোমাদের জন্য নিয়ে এসেছি মাধ্যমিক প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ : বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ সাজেশন 2023 ।। তোমাদের জন্য আজ আমি সম্পূর্ণ ইতিহাস অধ্যায় ভিত্তিক সাজেশন 2023 নিয়ে এসেছি ।সকল বিষয়ের সাজেশন এই ব্লগ থেকে তোমরা পাবে । Madhyamik history 3rd chapter 2023। এছাড়া দশম শ্রেণীর তৃতীয় অধ্যায় এর mcq,saq, অতিসংক্ষিপ্ত,সংক্ষিপ্ত প্রশ্নত্তর নিচে দেয়া হলো 

তো আজ আমি তোমাদের যে বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো সেটা হল ইতিহাস বিষয়(history subject) 

মাধ্যমিক ইতিহাস  প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ : বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ তৃতীয় অধ্যায়। দশম শ্রেণী তৃতীয় দিনের মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক নিচে দেয়া হলো ।এছাড়া দশম শ্রেনীর তৃতীয় অধ্যায় সাজেশন 2023 এর নতুন প্যাটার্ন এর প্রশ্নপত্র দেয়া হলো ।

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ  বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ  অধ্যায় অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর ।। মাধ্যমিক ইতিহাস তৃতীয় অধ্যায় সাজেশন 2023

দশম শ্রেনী তৃতীয় অধ্যায়  অতি সংক্ষিপ্ত সাজেশন 

1.উলগুলান বলতে কি বোঝো?

উত্তর:- মুন্ডা বিদ্রোহ জনিত ভয়ঙ্কর বিশৃঙ্খলা কে উলগুলান বলে 

2. কত খ্রিস্টাব্দে নীল কমিশন গঠিত হয় ?

উত্তর:- 1867 খ্রিস্টাব্দে

3. বাংলায় ওয়াহাবি আন্দোলনের নেতা কে ছিলেন?

উত্তর: তিতুমীর

4. বাংলায় ওয়াহাবি আন্দোলনের প্রধান ঘাঁটি কোথায় ছিল?

উত্তর: বারাসাত বসিরহাট অঞ্চলের নারকেলবেরিয়া গ্রামে

5.ফরাজি আন্দোলনের প্রবর্তক কে ?

উত্তর: হাজী শরীয়তুল্লাহ

6. ফরাজি আন্দোলনের সূচনা কোথায় হয়েছিল?

উত্তর: ফরিদপুর জেলার বাহাদুরপুর

7. নীল বিদ্রোহের সূচনা কোথায় হয়েছিল?

উত্তর: নদিয়ার কৃষ্ণনগরে চৌগাছা গ্রামে

8. বাংলা কোন উপন্যাসে মুন্ডা বিদ্রোহের কথা জানা যায়?

উত্তর: মহাশ্বেতা দেবীর অরণ্যের অধিকার উপন্যাস

9. বালাকোটের যুদ্ধ করে সংঘটিত হয়েছিল?

উত্তর:- বালাকোট যুদ্ধ 1831 খ্রিস্টাব্দে সংঘটিত হয়েছিল

10. বালাকোটের যুদ্ধ কাদের মধ্যে সংঘটিত হয়েছিল?

উত্তর: ওয়াহাবি ও সিক সম্প্রদায়ের মধ্যে সংঘটিত হয়

11. দেবী সিংহ কে ছিলেন?

উত্তর: রংপুরের অত্যাচারী ইজারাদার

12. ‘ফরাজি’ শব্দের অর্থ কী?

উত্তর: আরবি শব্দ ফরাজী এর অর্থ হল ইসলাম নির্দিষ্ট বাধ্যতামূলক কর্তব্য

13. ‘ওয়াহাবি’ শব্দের অর্থ কী?

উত্তর: নবজাগরণ

14. ‘ওয়াহাবি’ আন্দোলনের প্রকৃত নাম কী?

উত্তর: তারিখ ই মোহাম্মদিয়া অর্থাৎ মোহাম্মদ নির্দেশিত পথ

16. কে বাঁশের কেল্লা ধ্বংস করেন?

উত্তর: বড়লাট লর্ড উইলিয়াম বেন্টিঙ্ক 

17. ভীল কারা?

উত্তর: পশ্চিমঘাট পর্বতমালার পাদদেশে খান্দেশ অঞ্চলে বসবাসকারী উপজাতির ভিল নামে  পরিচিত

18. চুয়াড়’ কারা?

উত্তর:- চুয়াররা ছিল মেদিনীপুর বাঁকুড়া জেলার অন্তর্গত জঙ্গলমহল নামক বনাঞ্চলের আধিবাসী_

19. ভাগনাদিহির মাঠে কোন বিদ্রোহের সূচনা হয়?

উত্তর: সাঁওতাল বিদ্রোহের

20. বাংলার কোন উপন্যাসে সন্ন্যাসী-ফকির বিদ্রোহের চিত্র ফুটে ওঠে ?

উত্তর : বঙ্কিমচন্দ্র আনন্দমঠ উপন্যাসে

21. সাঁওতাল বিদ্রোহ বা ‘সাঁওতাল হুল’-এর প্রতীক কী ছিল?

উত্তর: সাঁওতাল বিদ্রোহ সাঁওতাল হুল এর প্রতীক ছিল শালপাতা ।

22. দিকু কারা?

উত্তর : সাঁওতালদের কাছে বহিরাগত জমিদার বা মহাজনরা  দিকু নামে পরিচিত

23. খুঁৎকাঠি প্ৰথা কী বা কাকে বলে ? 

উত্তর: মুন্ডাদের কৃষি ব্যবস্থার প্রধান বৈশিষ্ট্য ছিল জমির যৌথ মালিকানা বা খুৎকাঠি প্রথা

24. ধরতি আবা বা  ধরণীর পিতা নামে কাকে অভিহিত করা হয়?

উত্তর : বিরসা মুন্ডা

25. ভারতের প্রথম নীলকর কে ছিলেন? বা ভারতে নীল চাষের প্রবর্তন করেন কে?

উত্তর: ফরাসি বণিক লুই বর্নার্ড

26. ভারতে প্রথম নীল শিল্প কে গড়ে তোলেন?

উত্তর: 

 27. কোন আইনের মাধ্যমে ভারতে কোম্পানির শাসনের অবসান ঘটে এবং মহারানির হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরিত হয়?

উত্তর: 1851 খ্রিস্টাব্দের উন্নত ভারত শাসন আইনের মাধ্যমে

28. ভারতের প্রথম ভাইসরয় কে ছিলেন? 

উত্তর: লর্ড ক্যানিং

29. তিতুমীরের প্রধান সেনাপতি কে ছিলেন?

উত্তর: গোলাম মাসুম

30. ভারতীয় বন বিভাগ (ইম্পিরিয়াল ফরেস্ট ডিপার্টমেন্ট) কবে গঠিত হয়? 

উত্তর: 1864 খ্রিস্টাব্দে 



আরোও পড়ুন ” –সংস্কার : বৈশিষ্ট্য মূল্যায়ন দ্বিতীয় অধ্যায় সাজেশন 2023 ।। Madhyamik history 2nd chapter


আরোও পড়ুন ” –দশম শ্রেনী ভৌত বিজ্ঞান প্রথম অধ্যায় সাজেশন 2023 ।। Class 10th physical science 


আরোও পড়ুন ” –দ্বাদশ শ্রেণী ইতিহাস বিষয়ের অধ্যায় ভিত্তিক সাজেশন 2022

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ  বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ  অধ্যায় সংক্ষিপ্ত প্রশ্নপত্র ।। দশম শ্রেণী ইতিহাস তৃতীয় অধ্যায় সাজেশন 2023

দশম শ্রেণী তৃতীয় অধ্যায় সংক্ষিপ্ত  সাজেশন 

প্রশ্ন : নীলকররা নীলচাষিদের উপর কীভাবে অত্যাচার করত তা সংক্ষেপে  আলোচনা করো।

উত্তর- ১৮৫৯-৬০ খ্রিস্টাব্দে নীলকর সাহেবদের সীমাতীত অত্যাচার ও শোষণের প্রতিবাদে কৃষকরা তাদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করে। নীলকররা নীলচাষিদের নানাভাবে অত্যাচার করত—বলপূর্বক আটক, প্রহার, গৃহদাহ, কৃষি সরঞ্জাম বাজেয়াপ্তকরণ প্রভৃতি ছিল নিত্য-নৈমিত্তিক ঘটনা। এমনকি চাষিদের স্ত্রী-কন্যাদের সন্মানহানি করতেও নীলকর সাহেবরা পিছপা হত না।

প্রশ্ন : দুদু মিঞা স্মরণীয় কেন ?

উত্তর : শরিয়ত উল্লাহের মৃত্যুর পর ফরাজি আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন তার পুত্র মহম্মদ মুসিন, যিনি দুদু মিঞা নামেই সমধিক পরিচিত। তিনি ছিলেন সুসংগঠক ও রাজনৈতিক চেতনার অধিকারী। তিনি সাংগঠনিক কাঠামো গড়ে তুলে অত্যাচারী জমিদার ও নীলকরদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম শুরু করেন। তিনি গ্রাম্য বিবাদে ইংরেজদের আদালতে না গিয়ে সালিশির ব্যবস্থা করেন এবং জমিদারদের করধার্য করার অধিকার অস্বীকার করেন।

প্রশ্ন:  নীল বিদ্রোহে হরিশচন্দ্র মুখোপাধ্যায়ের ভূমিকা কীরূপ ছিল ?

 উত্তর :  ‘হিন্দু প্যাট্রিয়ট’ পত্রিকার সম্পাদক হরিশচন্দ্র মুখোপাধ্যায় তাঁর পত্রিকায় একদিকে নীলকর সাহেবদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন এবং অন্যদিকে নীলকর-বিরোধী জনমত গঠনে প্রয়াসী হয়েছিলেন। সাধারণ কৃষকদের উপর নীলকর সাহেবদের অকথ্য অত্যাচার, দাদন প্রথা, উর্বর জমিতে বলপূর্বক নীলচাষে কৃষকদের বাধ্য করা প্রভৃতি বিষয় তাঁর পত্রিকায় বিস্তৃতভাবে তুলে ধরেন। তিনি তাঁর পত্রিকার মাধ্যমে নীলকর সাহেবদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে শিক্ষিত মধ্যবিত্ত শ্রেণিকে সংগঠিত করেন।

প্রশ্ন : সন্নাসী-ফকির বিদ্রোহ ব্যর্থ হল কেন?

 উত্তর: সন্ন্যাসী-ফকির বিদ্রোহ ব্যর্থ হওয়ার অন্যতম কারণগুলি হল—(ক) ব্রিটিশ সরকারের চরম দমন-পীড়ন নীতি (খ) সাংগঠনিক দুর্বলতা (গ) সমাজের বৃহত্তর অংশের তথা সাধারণ মানুষের বিদ্রোহে শামিল না হওয়া, (ঘ) পরবর্তীকালের সাম্প্রদায়িক চরিত্র প্রভৃতি।

প্রশ্ন : নীল বিদ্রোহে খ্রিস্টান মিশনারীদের কীরূপ ভূমিকা ছিল ? 

 উত্তর : জে. জে. লিংকে, ফ্রেডারিক সুর, বামওয়েচ প্রমুখ খ্রিস্টান মিশনারীগণ সর্বপ্রথম নীলকরদের কার্যকলাপের প্রকাশ্য সমালোচনা করে শিক্ষিত সমাজকে জাগরিত করেছিলেন। আলেকজান্ডার ডাফ প্রমুখ মিশনারীদের সমর্থনে এগিয়ে আসেন।

প্রশ্ন: বারাসাত বিদ্রোহ বলতে কী বোঝো?

উত্তর: বাংলায় ওয়াহাবি আন্দোলনের প্রবর্তক তিতুমীর ২৪ পরগনার বারাসাত-বসিরহাট অঞ্চলের নারকেলবেড়িয়া গ্রামে তার প্রধান কর্মকেন্দ্র স্থাপন করে স্থানীয় জমিদার ও নীলকরদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে দরিদ্র হিন্দু ও মুসলমান কৃষকদের সংগঠিত করেন এবং শোষকের মদতদাতা ইংরেজের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেন। তিনি নিজেকে ওই অঞ্চলের বাদশাহ’ বলে ঘোষণা করেন। এটি বারাসাত বিদ্রোহ নামে পরিচিত। 

প্রশ্ন: খুঁৎকাঠি প্রথা’ বলতে কী বোঝো?

উত্তর : মুন্ডাদের কৃষিব্যবস্থার প্রধান বৈশিষ্ট্য ছিল জমির যৌথ মালিকানা বা ‘খুঁৎকাঠি প্রথা’। কিন্তু ব্রিটিশ সৃষ্ট নব্য ভূমিরাজস্ব ব্যবস্থাদি মুন্ডাদের এই চিরন্তন ভূমি ব্যবস্থায় ভাঙন ধরায় এবং তাদের জমিতে বহিরাগত জমিদার, মহাজন বা ‘দিকু’রা আধিপত্য কায়েম করে। এই অনাচারের বিরুদ্ধে জমিতে পুরোনো ‘খুঁৎকাঠি প্রথা‘ ফিরিয়ে আনার জন্য মুন্ডারা লড়াই করে। 


প্রশ্ন: বিরসা মুন্ডা কে ছিলেন ?

উত্তর : মুন্ডা বিদ্রোহের প্রধান নেতা ছিলেন বিরসা মুন্ডাতিনি নিজেকে ঐশী শক্তির অধিকারী ‘ধরতি আবা’ বা ধরণীর পিতা বলে ঘোষণা করেন। ব্রিটিশের কর্তৃত্বমুক্ত স্বাধীন মুন্ডা রাজ্য প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে তিনি মুন্ডাদের সংগঠিত করেন। শেষপর্যন্ত ১৯০০ খ্রিস্টাব্দ নাগাদ তিনি বন্দি হন ও কলেরা রোগে মৃত্যু বরণ করেন। ব্রিটিশ বিরোধী সংগ্রামে আদিবাসী জনজাতির প্রথম সারির নেতারূপে তিনি ইতিহাসে স্মরণীয়।

প্রশ্ন: রানি শিরোমণি বিখ্যাত কেন ?

উত্তর—চুয়াড় বিদ্রোহের দ্বিতীয় পর্বের অন্যতম প্রধান নেত্রী ছিলেন মেদিনীপুরের কর্ণগড়ের জমিদার রানি শিরোমণি। তিনি সশস্ত্র পথে চুয়াড়দের সংগঠিত করেন। তাঁর নেতৃত্বে ১৭৯৯ খ্রিস্টাব্দ নাগাদ বিদ্রোহ প্রবল আকার ধারণ করে। চুয়াড় বিদ্রোহে তার অসামান্য অবদানের জন্য তাঁকে ‘মেদিনীপুরের লক্ষ্মীবাই‘ অভিধায় ভূষিত করা হয়। 

প্রশ্ন: ব্যবসায়ীরা কীভাবে সাঁওতালদের শোষণ করত ?

উত্তর : বহিরাগত অসাধু ব্যবসায়ীরা সাঁওতালদের সরলতা ও অজ্ঞতার সুযোগ নিয়ে একদিকে ‘কেনারাম’ নামক বাঁটখারা দিয়ে তাদের কাছ থেকে সঠিক ওজন অপেক্ষা বেশি দ্রব্য সংগ্রহ করত, অন্যদিকে ‘বেচারাম’ নামক বাঁটখারা দিয়ে সঠিক ওজন অপেক্ষা কম দ্রব্য দিয়ে প্রায়শই তাদের ঠকাত। এই ব্যাবসায়িক কারচুপি সাঁওতালদের কাছে ক্রমে পরিস্ফুট হতে থাকলে তারা এই অসাধু ব্যবসায়ীদের বিতাড়িত করার উদ্যোগ নেয়।

প্রশ্ন : বিদ্রোহ ও বিপ্লবের মধ্যে পার্থক্য কী?

উত্তর : বিদ্রোহ বলতে বোঝায় প্রচলিত কোনো ব্যবস্থার বিরুদ্ধে একক বা সমষ্টিগতভাবে প্রতিবাদ জানানো বা বিরোধিতা করা। যেমন- রংপুর বিদ্রোহ, পাবনার কৃষক বিদ্রোহ, নীল বিদ্রোহ প্রভৃতি। বিপ্লব বলতে বোঝায় প্রচলিত ব্যবস্থায় দ্রুত, আমূল ও স্থায়ী তথা কার্যকরী পরিবর্তন। এহেন বিপ্লব রক্তক্ষয়ী বা বিনা রক্তপাতেও সংঘটিত হতে পারে। উদাহরণস্বরূপ বলা যায়, ১৭৮৯ খ্রিস্টাব্দের ফরাসি বিপ্লব রক্তক্ষয়ী বিপ্লবের একটি দৃষ্টান্ত। অন্যদিকে অষ্টাদশ শতকের দ্বিতীয়ার্ধে ইংল্যান্ডে সংঘটিত শিল্প বিপ্লব রক্তপাতহীন বিপ্লবের একটি দৃষ্টান্ত। 

প্রশ্ন : সাঁওতাল স্থুল’ বলতে কী বোঝো?

উত্তর : ‘হুল’ শব্দের অর্থ বিদ্রোহ। ১৮৫৫-৫৬ খ্রিস্টাব্দে জমিদারি শোষণ, অত্যাচার, মহাজনি শঠতা, রেল ঠিকাদারদের অসামাজিক ক্রিয়াকলাপ প্রভৃতির বিরুদ্ধে সাঁওতালরা যে বিদ্রোহে শামিল হয়েছিল, তা ‘সাঁওতাল হুল’ নামে পরিচিত। সিধু, কানু, চাঁদ, ভৈরব প্রমুখ ‘সাঁওতাল হুল’-এ নেতৃত্ব দেন।

প্রশ্ন :  ভীল কারা ?

উত্তর : পশ্চিমঘাট পর্বতমালার পাদদেশে খান্দেশ অঞ্চলে বসবাসকারী আদিম উপজাতিরা ভীল নামে পরিচিত। ব্রিটিশের শাসন, শোষণ, অত্যাচার, মহাজনী শোষণ প্রভৃতির বিরুদ্ধে ১৮১৮-১৯ খ্রিস্টাব্দে তারা বিদ্রোহে শামিল হয়। চিল নায়েক, শিউরাম প্রমুখ ভীলদের নেতৃত্ব দেন।

প্রশ্ন : এলাকাচাষ ও বে-এলাকাচাষ কী? 

উত্তর : নীলকর সাহেবরা এদেশে নীলচাষের ক্ষেত্রে উক্ত দুই পদ্ধতি গ্রহণ করেছিল। নীলকরের নিজের জমিতে পারিশ্রমিকের বিনিময়ে নীলচাষ এলাকাচাষ নামে পরিচিত। অন্যদিকে, কৃষকের জমিতে দাদন প্রদানের মাধ্যমে নীলচাষ বে-এলাকাচাষ নামে পরিচিত। তবে বে-এলাকাচাষ নীলকরের পক্ষে বেশি লাভজনক হওয়ায় তারা কৃষককে বলপূর্বক এই চাষে বাধ্য করত।

আরোও পড়ুন ” একাদশ শ্রেণি ভূগোল অধ্যায় ভিত্তিক সাজেশন 2022

আরোও পড়ুন “” একাদশ শ্রেণী দর্শন অধ্যায় ভিত্তিক সাজেশন 2022

আরোও পড়ুন ” দ্বাদশ শ্রেণী ভূগোল দ্বিতীয় অধ্যায় সাজেশন  

Leave a Comment